ইনফ্রারেড কী? |অবলোহিত রশ্মি কি? | বিস্তারিত

ইনফ্রারেড কী?,অবলোহিত রশ্মি কি?, ইনফ্রারেড এর সুবিধা কি কি , অবলোহিত রশ্মির সুবিধা কি কি ,ইনফ্রারেড এর সীমা , ইনফ্রারেড এর প্রকারভেদ ,

ইনফ্রারেড (অবলোহিত রশ্মি) : ৩০০ GHz ( গিগাহার্জ ) হতে ৪০০ THz  (টেরাহার্জ) পর্যন্ত ফ্রিকোয়েন্সীকে ইনফ্রারেড বলা হয়। [wikipedia] | এর ফ্রিকোয়েন্সী সীমা টেরাহার্টজ । এটি wireless ডাটা ট্রান্সফারে ব্যবহৃত হয়ে থাকে । IR(ইনফ্রারেড Ray) বেতারগুলি(wireless) ডিভাইস বা সিস্টেমে বেতার প্রযুক্তি ব্যবহার করে যা ইনফ্রারেড (আইআর) বিকিরণের মাধ্যমে তথ্য সরবরাহ করে। ইনফ্রারেড একটি লাল তরঙ্গের চেয়ে কিছুটা তরঙ্গদৈর্ঘ্যে বেশি বা তরঙ্গদৈর্ঘ্যের ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক শক্তি।

তড়িৎচুম্বকিয় বিকিরণ আলোকে ,

ইনফ্রারেড : ( তড়িৎচুম্বকিয় বিকিরণ আলোকে) দৃশ্যমান আলোর বর্ণের লাল প্রান্তের তরঙ্গদৈর্ঘ্যের মাত্রার তুলনায় বেশি কিন্তু মাইক্রোওয়েভগুলির চেয়েও কম। ইনফ্রারেড বিকিরণের তরঙ্গদৈর্ঘ্য প্রায় 800 ন্যানো মি থেকে 1 মিমি এবং বিশেষ করে তাপীয় বস্তু থেকে নির্গত হয়।

 ইনফ্রারেড সিগন্যাল দুটো পদ্ধতিতে ট্রান্সমিশনের কাজ করে। তাহলোঃ

  • পয়েন্ট-টু-পয়েন্ট (Point-to-Point)
  • ব্রডকাস্ট (Broadcast).            

ইনফ্রারেড এর সুবিধাগুলো :

এটি 10 ​​থেকে 30 মিটার দূরত্ব জুড়ে কাজ করে ।

4 এমবিপি পর্যন্ত ডাটা হার অর্জন করা যেতে পারে।

এটি ২ টি ডিভাইস পর্যন্ত সর্বাধিক সাপোর্ট করে করে।

এর ফ্রিকোয়েন্সী সীমা টেরাহার্টজ



Author: drmasud

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *