গুগল ক্রম এর কিছু ব্যবহার জানুন – গুগল ক্রম টিপস

গুগল ক্রম যারা এখনো ব্যাবহার করেননি, তারা আজকে থেকেই ব্যাবহার করা শুরু করতে পারেন। আজকে আমি আপনাদের এমন একটা এক্সটেনশন এর কথা বলব যেটা আমাদের জন্য অনেক জরুরি

আগে আসি গুগল ক্রম কি?
গুগোল ক্রম হল একটা ওয়েব ব্রাউজার, অন্যান্য সকল ব্রাউজার যেমন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার, মজিলা এর মত। গুগল এটা তৌরি করে, ২০০৮ এর সেপ্টেম্বরে বিটা ভার্সন রিলিজ করে। ডিসেম্বরে ফাইনাল রিলিজ হয়।

গুগল ক্রমের সুবিধা কি?
১. খুব সাধারণ ডিজাইন
২. অন্যান্য ইন্টারনেট ব্রাউজারের তুলনায় অনেক বেশি দ্রুত গতির। বিশেষ করে ভিডিও এর জন্য খুবই গুরুত্ব পূর্ণ।
৩. অন্যান্য ব্রাউজারের মত আপনাকে সার্চ করার জন্য প্রথমে গুগল এর পেজে যেতে হবে না। গুগল ক্রমের এড্রেস বার সার্চ করার জন্য সরাসরি ব্যাবহার করা যায়, সেটা আপনার কাজ একটু দ্রুত সম্পন্ন করতে সহায়তা করবে।
৪. গুগল ক্রমে আপনি ছদ্মবেশে ব্রাউজ করতে পারেন। সেটা আপনার ব্রাউজারে কোনকিছু সেভ করা থেকে বিরত রাখবে। এমনকি কুকিও পর্যন্ত।
৫. নিউ ট্যাব ওপেন করার মাধ্যমে আপনাকে দেখাবে কোন ওয়েবসাইট গুলোতে আপনি বেশি গিয়েছেন।
৬. নিউ ট্যাব একটা আলাদা প্রসেস হিসাবে কাজ করে, সেই কারণে সমস্ত ব্রাউজার কখনো ক্রাশ করে না। শুধু যে ট্যাবটা ক্রাশ করে সেটা আর কাজ করে না। কিন্তু অন্যগুলো নিজের মত কাজ করতে থাকে।

অসুবিধা সমূহ:
১. আলাদা করে পাসওয়ার্ড সেভ করার দরকার হয়না। সে নিজের থেকেই ব্রাউজারের সমস্ত ডাটা স্টোর করে রাখে। যেটা পরবর্তীতে অনেক কাজে লাগে, কারণ তখন নতুন করে আর ডাটা দেওয়ার দরকার হয় না।
২. আর এস এস ফিড সাপোর্ট করে না।

পরিশেষে এক কথায় আমরা বলতে পারি, গুগল ক্রমের পজিটিভ হচ্ছে অনেক ফাস্টার যদিও ফিচারের দিক দিয়ে বেশি অগ্রসর হতে পারেনি। সব কিছুর পরেও আমি গুগল ক্রমের ভক্ত, আছি যত দিন না পর্যন্ত গুগল ক্রমের দুর্বলতা খুঁজে না পাই।

আপনাদের জন্য একটা বড় বোনাস আছে।
যারা গুগল ক্রম ব্যাবহার করেন, শুধু মাত্র তাদের জন্য।
আপনারা অনেকেই হয়ত গুগল ক্লাউড প্রিন্ট এর নাম শুনেছেন। আপনি যদি গুগল ক্লাউড প্রিন্ট কানেক্টর একটিভ করে থাকেন তবে একটা এক্সটেনশন অ্যাড করেনিন যেটা দিয়ে আপনি যে কোন কম্পিউটার থেকে গুগল ক্রম ব্রাউজার এই মাধ্যমে সরাসরি যে কোন কিছু প্রিন্ট করতে পারবেন। ধরুন আপনি অফিসে আছেন অথবা আপনি জার্নিতে আছেন, আপনার প্রিন্টার আছে আপনার বাসার কম্পিউটারের সাথে, এখন আপনার একটা ডকুমেন্ট প্রিন্ট করতে হবে যেটা আপনি এইমাত্র আপনার ব্রাউজারে ব্রাউজ করলেন, আপনি কি করবেন? আপনি যদি গুগল ক্লাউড প্রিন্ট এক্সটেনশনটা ইন্সটল করেন তাহলে আপনি এটার মাধ্যমে সরাসরি প্রিন্ট করতে পারবেন তাছাড়া আপনার প্রিন্টার কে দেখতে পারবেন, এমনকি আপনি প্রিন্টারের সমস্ত ফিচার-ও দেখতে পারবেন (এক্স: উভয় পেজ না সিঙ্গেল পেজ প্রিন্ট করতে চান।) পরে আপনি বাসায় গিয়ে আস্তে ধিরে সেটা পড়তে পারবেন।

আরেকটা উদাহরণ দেই: আপনি ক্লাসে ক্লাস করছেন। টিচার আপনাকে কিছু পিডিএফ ফাইল পরাচ্ছেন। আপনার কাছে কোন পেন ড্রাইভ নেই যে আপনি সেটাতে করে নিয়ে আসবেন। টিচার সেটা তার ওয়েবসাইট থেকে পরাচ্ছেন যেটা আপনি আপনার মোবাইল ফোন থেকে এক্সেস করতে পারেন। এমতাবস্থায় আপনি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ব্রাউজার দিয়ে আপনার পিডিএফ টাকে প্রিন্ট করতে পারবেন। এর ফলে বাসায় নিয়ে প্রিন্ট করার ঝামেলা থাকেনা আবার ভুলে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকল না। এরকম অনেক আপ্লিকেশন আছে যেটা আমাদের প্রতিদিনের কাজে লাগে।

ধাপ সমূহ:
যদি গুগল ক্রম ইন্সটল করা না থাকে এখান থেকে ইন্সটল করে নিতে পারেন। তার পর আপনাকে এখান থেকে গুগল ক্লাউড কানেক্টর টা একটিভ করে নিতে হবে।
এই পেজ-এ গিয়ে স্ক্রল করে নিচে যান ওখান থেকে Chrome Web Store – Google Cloud Print extension থেকে এক্সটেনশন টা অ্যাড করে নিন। আর আপনি যত খুশি যেখান থেকে পারেন প্রিন্ট করুন।

সহায়ক পেজ হিসাবে এই পেইজটা দেখতে পারেন।
সুত্রঃ
১. Click This Link
২. http://www.google.com/chrome/
৩. http://www.google.com/chrome/
৪. http://en.wikipedia.org/wiki/Google_Chrome

এটা নিতান্তই একটা গাজা খোরি টাইপের পোষ্ট কারও পড়তে বা বুঝতে কষ্ট হলে লেখক দায়ী নহে। সমস্ত দায়ভার পাঠকের সম্পূর্ণ নিজ দায়িত্বে থাকবে।

Author:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *