নতুন তথ্যপ্রমাণ পাওয়ার দাবি মঙ্গলে প্রাণ সৃষ্টির মৌলিক উপাদান রয়েছে।

 নতুন তথ্যপ্রমাণ পাওয়ার দাবি মঙ্গলে প্রাণ সৃষ্টির মৌলিক উপাদান রয়েছে।

প্রাণ সৃষ্টি হতে পারে, মঙ্গলগ্রহে এমন মৌলিক উপাদান পাওয়ার কথা দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনের কার্নেগি ইনস্টিটিউশন ফর সায়েন্সের একদল বিজ্ঞানী তাঁদের গবেষণার ফলাফলে এ তথ্য পাওয়ার কথা দাবি করেন। তাঁদের এই গবেষণা-বিষয়ক নিবন্ধ বিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী সায়েন্সে প্রকাশিত হয়। বিবিসি অনলাইনে এ কথা জানানো হয়।
মঙ্গলের উল্কাপিণ্ড পরীক্ষা করে গবেষকেরা দেখেছেন, প্রাণ গঠনের প্রাথমিক উপাদান এই গ্রহটিতে রয়েছে। গবেষণার ফলের বরাত দিয়ে বিজ্ঞানীরা দাবি করেন, মঙ্গলের চারপাশে ৪০০ কোটি বছরেরও বেশি সময় ধরে ঘোরা ১০টি উল্কাপিণ্ড গবেষণা করে কার্বনের সন্ধান পেয়েছেন তাঁরা। উল্কাপিণ্ডে মঙ্গল গ্রহের আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুত্পাতের ফলে সৃষ্ট কার্বন যৌগের অস্তিত্বের প্রমাণ পেয়েছেন। কার্বনের সঙ্গে কার্বনের বা কার্বনের সঙ্গে হাইড্রোজেনের বন্ধনে যে জৈব যৌগ তৈরি হয়, তাই প্রাণ গঠনের প্রাথমিক উপাদান হিসেবে বিবেচনা করেন গবেষকেরা।
গবেষক দলের প্রধান অ্যান্ড্রু স্টিল বলেন, ‘আমরা প্রায় চার দশক ধরে মঙ্গলের জৈব যৌগের সন্ধান করছি। এই যৌগ কোথায় রয়েছে বা মঙ্গলে এর অস্তিত্ব আছে কি না, তা নিয়ে গবেষণা চলেছে।’ সাম্প্রতিক গবেষণায় মঙ্গলে জৈব যৌগ থাকার প্রমাণ দিয়েছে। গবেষকেরা আশা করছেন, ‘কিউরিওসিটি’ নামের মঙ্গল রোবটটি তাঁদের জন্য অপার সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দেবে। গবেষকেরা মঙ্গল গ্রহের তথ্য অনুসন্ধানে কিউরিওসিটিকে পাঠানোর পরিকল্পনা করেছেন। এখন এই রোবটটি পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। এদিকে ডেইলি মেইল জানিয়েছে, বর্তমানে মঙ্গলে অবস্থান করা ‘অপরচুনিটি’ নামের রোবটটি আবারও সচল হয়েছে। সেখান থেকে লাল গ্রহটির তথ্য অনুসন্ধানে আবার কাজ করা শুরু করেছে। এর আগে মঙ্গলে শীতকাল শুরু হলে সৌরশক্তির অভাবে কাজ করার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছিল অপরচুনিটি।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *