প্রাণী বৈচিত্র্য(পর্বঃ২৮)|তুয়াতারা

আশ্চর্য এক প্রাণী তুয়াতারা। যার বয়স ২০
কোটি বছর। এখনো এ প্রাণীটি বেঁচে আছে।
বিজ্ঞানীরা তাই অবাক হয়ে তুয়াতারার
নাম দিয়েছেন জীবন্ত জীবাশ্ম। যেমন এ
নামে ডাকা হতো সিলাকনথ মাছকে।
তেরো কোটি বছর আগের মাছটি জীবিতাবস্থায় প্রথম ধরা পড়েছিল
১৯৩৮ সালে মাদাগাস্কারের উপকূলে। তুয়াতারাকে নিয়ে বিস্ময়ের অন্ত নেই।
ডাইনোসরদের চেয়ে অন্তত
সাড়ে বারো কোটি বছর আগে এ
প্রাণীটি জন্ম নিয়েছিল পৃথিবীতে।
আকারে এক ফুট লম্বা। সরীসৃপ জাতীয়
প্রাণী। অবাক কাণ্ড, তুয়াতারার কোনো দাঁত বা কান নেই। অনেক সময়
ইচ্ছামতো নিজেদের শরীর থেকে লেজ
খসিয়ে ফেলে। এই তুয়াতারাদের শুধুমাত্র
দেখতে পাওয়া যায় নিউজিল্যান্ডের
উপকূলে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের
চিড়িয়াখানাগুলো সংগ্রহ করতে চায় এ প্রাণীকে। তখন অনুরোধ জানানো হয়
নিউজিল্যান্ডের কর্তৃপক্ষকে। অনেক সময়
বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য বা অন্য
কোনো দুষ্প্রাপ্য প্রাণীর বিনিময় প্রথায়
তুয়াতারাকে পাঠানো হয় দেশের বাইরে।
যখন এ প্রাণীটিকে দেশের বাইরে পাঠানোর প্রয়োজন হয় তখন
নিউজিল্যান্ডের অধিবাসী মাউরিরা কিছু
আচার-অনুষ্ঠান পালন করে।
ঐতিহ্যবাহী পোশাক পরে এরা উপস্থিত
থাকে তুয়াতারার বিদায়
এবং গন্তব্যস্থলে। তুয়াতারা যদি বিমানে করে অন্য
দেশে যায় তখন প্রথা অনুযায়ী তার
সঙ্গে একজন প্রবীণ আদিবাসীও যায়।
মাউরিরা তুয়াতারাকে ভীষণ শ্রদ্ধা করে।
তারা মনে করে এ প্রাণীটি খুব পবিত্র।
তাদের পূর্ব পুরুষদের আত্মার সঙ্গে এ প্রাণীর অস্তিত্ব মিশে আছে।

Author: রিয়াদ হোসেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *