ফ্রিলান্সিং মাষ্টার :: প্র্যাকটিকাল ফ্রিলান্সিং ক্যারিয়ার (পর্ব – ১১) | COMILLAIT| Bangla Technology Blog | বাংলা প্রযুক্তি ব্লগ

ফ্রিলান্সিং মাষ্টার :: প্র্যাকটিকাল ফ্রিলান্সিং ক্যারিয়ার (পর্ব – ১১)

লেখক : | ১টি কমেন্ট | 205 বার দেখা হয়েছে দেখা হয়েছে । শেয়ার করে আপনবর বন্ধুদের জানিয়ে দিন ।

আস্‌সালামুআলাইকুম। সবাই কেমন আছেন? আশা করি ভালই আছেন। প্রোফাইল তৈরীকরণের প্রায় শেষ প্রান্তেই আমরা এসে গেছি। আজ আমরা পোর্টফোলিওসহ অন্যান্য বিষয়গুলো সম্পর্কে জানবো।

পোর্টফোলিও কি?

সাধারণ কথায় বলতে গেলে, পোর্টফোলিও হচ্ছে সেই কালেকশন যা একজন ছাত্র/কর্মী/লোকের কাজের দক্ষতা, প্রয়াস, কীর্তি ইত্যাদি প্রকাশ করে। পোর্টফোলিওকে আপনি আপনার কাজের প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

আপনি কেন পোর্টফোলিও ব্যবহার করবেন?

প্রথমত, ওডেস্কে কাজ পেতে হলে পোর্টফোলিও অনেক গুরুত্ব রাখে। প্রোফাইল বিল্ডিংয়ের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল পোর্টফোলিও তৈরীকরণ। পোর্টফোলিও না রাখলে আপনার প্রোফাইল তৈরীকরণ সম্পন্ন হবে না। আপনার পোর্টফোলিও দেখে বায়ার আপনার অভিজ্ঞতার পরিমাপ করতে পারবে। অন্তত গ্রাফিক্স ও ওয়েব ডিজাইনের কাজের জন্য পোর্টফোলিওয়ের বিকল্প নাই। অনেক সময় নিজের ডিজাইন করা কয়েকটা কাজের স্যাম্পল এক সাথে দিতে সমস্যা হতে পারে। এই সময় আপনার যদি ভাল পোর্টফোলিও থাকে তাহলে আপনি শুধু তার লিংক ব্যবহার করে আপনার এবং বায়ার উভয়ের সময় বাচাতে পারেন। আমার পরিচিত অনেক ফ্রিল্যান্সার আছেন যারা শুধুমাত্র পোর্টফোলিওয়ের কারনে অনেক সময় বিড ছাড়াই কাজ পেয়ে থাকেন।

পোর্টফোলিও কিভাবে তৈরী করবেন?

পোর্টফোলিওয়ের জন্য নিজের আলাদা একটা পোর্টফোলিও সাইট করে নেওয়াই আমার কাছে সবচেয়ে উত্তম মনে হয়। যেখানে শুধু আপনার কাজই থাকবে। তবে প্রথম অবস্থায়ই যে পোর্টফোলিও তৈরী করতে হবে এরকম না। আপনার কোন পোর্টফোলিও সাইট না থাকলেও আপনি কাজ পাবেন। আমার নিজেরও পোর্টফোলিওয়ের জন্য আলাদা কোন সাইট নাই।: ) আমি ওডেস্কের পোর্টফোলিও অংশেই আমার পোর্টফোলিও রাখি।

ওডেস্কে কিভাবে পোর্টফোলিও রাখবেন?

ওডেস্কে ঢুকে Edit Profile বাটনে ক্লিক করলে নিচের দিকে দেখতে পাবেন Portfolio. ঐখানে Edit বাটনে ক্লিক করে আপনার পোর্টফোলিও রাখবেন। পোর্টফোলিও রাখার সময়- Project Title-এ আপনার প্রোজেক্টের নাম দিবেন। তারপর Image-এ আপনার প্রোজেক্টের একটা স্ক্রিনশর্ট দিবেন। গ্রাফিক্স ডিজাইন হলে আপনার ডিজাইনটা তুলে রাখবেন। ওয়েব ডিজাইন বা এস.ই.ও হলে আপনার প্রজেক্ট সাইটের একটা স্ক্রিনশট দিয়ে দিবেন। Attachment-এ প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে একটা ফাইল তুলে রাখবেন (না রাখলেও সমস্যা নাই)। তারিখ এবং ক্যাটাগরিতো বুঝতেই পারছেন। এগুলোর পরেই পাবেন Project Description, এখানে আপনার প্রোজেক্টের বিস্তারিত লিখে দিবেন। এবং সব শেষে পাবেন Project URL, যেখানে আপনি আপনার প্রোজেক্টের লিংক দিবেন। সবশেষে Save বাটনে ক্লিক করে বেড়িয়ে আসুন।

এখন অনেকের মাঝেই এ প্রশ্ন আসতে পারে, “ওডেস্কে পোর্টফোলিও রাখার জায়গা আছে তাহলে আমরা কেন পোর্টফোলিওয়ের জন্য আলাদা সাইট কিনব?”

উত্তর হচ্ছে- আপনিতো সারা জীবন আর ওডেস্কে কাজ করবেন না। আজ হয়তো কাজে বিড করার জন্য সময় পাচ্ছেন। কিছুদিন পরে আপনার অবস্থার পরিবর্তন হলে আপনার নিজস্ব একটা পরিচয়ের দরকার হবে। এছাড়াও অনেকেই আছে যারা তাদের ওয়ার্কার গুগোলে সার্চ করে বের করতে বেশী পছন্দ করে। তাহলেতো তারা আপনাকে পাবেনা, যদিনা আপনার কোন নিজস্ব পোর্টফোলিও থাকে। ওডেস্কের বাহিরে প্রোফেশনালি কাজ করার ক্ষেত্রে পোর্টফোলিওয়ের গুরুত্ব অনেক।

পোর্টফোলিওতে কি রাখা যাবে না?

ওডেস্কের আপনার পোর্টফোলিওতে আপনি আরেকজনের পোর্টফোলিও রাখতে পারবেন না। অনেকেই আছেন দেখা যায় আরেকজনের ডিজাইন দেখে ভাল লাগলে তা তৈরী করে বা কপি করে নিজের প্রোফাইলে রেখে দেন। এইসব কাজ থেকে বিরত থাকুন। কারণ, ওডেস্কের একটা টিম আছে যারা প্রোফাইল দেখাশুনা করে। একবার ধরা পড়লে আপনার ওডেস্ক প্রোফাইলটাই সাসপেন্ড হয়ে যাবে।

পোর্টফোলিওতে আপনি শুধু আপনার করা কাজগুলোর তথ্য রাখবেন।

Portfolio এর পরে পাবেন Certifications. এখানে আপনি আপনার বিভিন্ন টেস্টের বর্ণনা দিতে পারেন।

সবশেষে পাবেন: Other Experience. এখানে আপনি আপনার টাইটেল, কাজের দক্ষতা ছাড়া আরো কোন কাজে দক্ষতা থাকলে তা শেয়ার করবেন।

আর এরই মাধ্যমে শেষ হয়ে গেল ওডেস্কে প্রোফাইল তৈরীকরণ। নতুন আর্টিকেল নিয়ে খুবই শীগ্রহী আপনাদের সামনে হাজির হব।

সবাই ভাল থাকুন, বেশী বেশী করে কাজ শিখুন আর ওডেস্কে খুব তাড়াতাড়ি জব বিজয়ী হোন।

আল্লাহ্‌ হাফেজ।

লেখাটি আপনাদের ভাল লেগেছে?
FavoriteLoadingপ্রিয় পোষ্ট যুক্ত করুন

একটি কমন্টে to “ফ্রিলান্সিং মাষ্টার :: প্র্যাকটিকাল ফ্রিলান্সিং ক্যারিয়ার (পর্ব – ১১)”

  1. May 19, 2012 at 3:26 pm

    অনেক কাজের টিউন

১টি কমেন্ট করুন

*