বাংলা বানানের পাঁচটি নিয়ম | বাংলা একাডেমী প্রমিত নিয়ম | COMILLAIT| Bangla Technology Blog | বাংলা প্রযুক্তি ব্লগ

বাংলা বানানের পাঁচটি নিয়ম | বাংলা একাডেমী প্রমিত নিয়ম

লেখক : | ০ টি কমেন্ট | 30 বার দেখা হয়েছে দেখা হয়েছে । শেয়ার করে আপনবর বন্ধুদের জানিয়ে দিন ।

বাংলা দ্বিতীয় পত্র : বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা বানানের নিয়ম pdf ,বাংলা বানানের নিয়ম কানুন bangla bananer niyom ,বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা বানানের ৫টি নিয়ম ,সঠিক বানান ,শুদ্ধ বানান pdf ,প্রমিত বানান রীতি pdf ,বাংলা একাডেমি প্রমিত বাংলা বানানের পাঁচটি নিয়ম ,শুদ্ধ অশুদ্ধ বানান, বাংলা শুদ্ধ – অশুদ্ধ বানান…

বাংলা বানানের নিয়মগুলো :

প্রশ্ন : বাংলা বানানের পাঁচটি নিয়ম লিখ ? উদাহারণসহ ।

উত্তরঃ উদাহরণসহ বাংলা বানানের পাঁচটি নিয়মঃ

১. যে-সব তৎসম শব্দে ই ঈ বা উ ঊ উভয় শুদ্ধ কেবল সেসব শব্দে কেবল ই বা উ এবং তার কার-চিহ্ন ি ু ব্যবহৃত হবে৷ যেমন:

কিংবদন্তি, খঞ্জনি, চিৎকার, চুল্লি, তরণি, ধমনি, ধরণি, নাড়ি, পঞ্জি, পদবি, পল্লি, ভঙ্গি, মঞ্জরি, মসি, যুবতি, রচনাবলি, লহরি, শ্রেণি, সরণি, সূচিপত্র;
উর্ণা, উষা।

২. রেফের পর ব্যঞ্জনবর্ণের দ্বিত্ব হবে না। যেমন-কর্তা, কর্ম, ধর্ম, সর্ব, অর্ধ ইত্যাদি।

৩. সন্ধির ক্ষেত্রে ক খ গ ঘ পরে থাকলে পদের অন্তস্থিত ম্‌ স্থানে অনুস্বার (ং) লেখা যাবে৷ যেমন:

অহম্‌ + কার = অহংকার

৪. বিশেষণবাচক “আলি’ প্রত্যয়যুক্ত শব্দে ই-কার হবে। যেমন- সোনালি, রূপালি, বর্ণালি ইত্যাদি।

৫. ভাষা ও জাতির নামের শেষে ই-কার হবে। যেমন- বাঙালি, ইংরেজি, জাপানি ইত্যাদি।

৬. অতৎসম শব্দের বানানে ণ ব্যবহার করা যাবে না। যেমন:

অঘ্রান, ইরান, কান, কোরান, গভর্নর, গুনতি, গোনা, ঝরনা, ধরন, পরান, রানি, সোনা, হর্ন।

 

 

লেখাটি আপনাদের ভাল লেগেছে?
FavoriteLoadingপ্রিয় পোষ্ট যুক্ত করুন

১টি কমেন্ট করুন

*