ল্যাপটপ কিনতে চান

আজকের আধুনিক জীবনে যে কয়েকটা প্রযু্ক্তি পণ্য দৈনন্দিন জীবনে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয়ে থাকে, ল্যাপটপ পিসি তাদের মধ্যে অন্যতম। আর কিছুদিন আগেও লোকে কম্পিউটার বলতে কেবল ডেস্কটপকেই বুঝতো। কিন্তু আজ সে ধারণাটা পুরোপুরি পাল্টে গেছে। মূলত ল্যাপটপ পিসি দাম কমে যাওয়া এবং আগের মত ডেস্কটপের ব্যবহার না হওয়ায় এ ধরণের অবস্থা তৈরি হয়েছে। আজ ঢাকা শহরের ল্যাপটপের বাজার নিয়ে কিছু কথা বলতে চাই।

ঢাকা শহরে প্রযুক্তি পণ্য কেনার যে বড় বড় মার্কেটগুলো আছে, যেমন: বসুন্ধরা সিটি, আইডিবি সেন্টার, মাল্টিপ্ল্যান সেন্টার বা আরও অন্যান্য মার্কেটগুলোই হচ্ছে ল্যাপটপের আড়ত। এখান থেকে যাচাই-বাছই করে একটি ভালো মানের ল্যাপটপ কেনা সম্ভব। এছাড়া দেশে কিছু আমদানীকারক রয়েছেন যারা বিভিন্ন কোম্পানীর ল্যাপটপগুলো বাংলাদেশে বাজারজাত করে থাকেন। এ সকল কোম্পানীর মধ্যে রায়ানস, ফ্লোরা লিমিটেড ছাড়াও আইডিবি সেন্টারের আরও অনেক কোম্পানী ল্যাপটপ আমদানী করে থাকে। এখানে তাদের কথাই আলোচনা করা হচ্ছে যারা কেবল বৈধ উপায়ে এ সকল পণ্য বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানী করে থাকেন। অবৈধ পথে ট্যাক্স ফাঁকি দিয়েও প্রচুর প্রযুক্তি পণ্য বাংলাদেশের বাজারে ঢুকে পড়ছে। কেনার সময় এ বিষয়গুলোতে যথাসম্ভব সচেতন থাকা জরুরী।

ব্র্যান্ডের বিষয়ে কথা বলতে গেলে, বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ল্যাপটপের ব্র্যান্ড হচ্ছে ডেল। এছাড়াও এইচপি, আসুস, লেনোভো, সনি ইত্যাদি ল্যাপটপগুলোও মোটামুটি ভালই বিক্রি হয়। একেক ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ একেকটি বিশেষ সুবিধা নিয়ে আসে। তাই কেনার আগে যথাযথ বাজার গবেষণা করে আপনার প্রয়োজনীয় মডেলটি আগেই নির্বাচন করে রাখুন। এতে কেনার সময় সুস্থ স্বাভাবিক, ঠান্ডা মাথায় ল্যাপটপটি পরীক্ষা করে দেখতে পারেন।

ল্যাপটপ কেনার সময়ে ওয়ারেন্টি বিষয়ে খেয়াল রাখলে পরবর্তী সময়ের অনেক সমস্যা এড়ানো যায়। বিদেশ থেকে অবৈধভাবে দেশে আমা ল্যাপটপের ক্ষেত্রে আপনি কোন ধরণের ওয়ারেন্টি পাবার আশা করতে পারেন না। বেশিরভাগ সময়ে এগুলোর ক্ষেত্রে দোকানদার ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে যাকে সার্ভিসিং ওয়ারেন্টি বলা হয়। ব্র্যান্ড ওয়ারেন্টি পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই রেজিস্টার্ড পণ্য কিনতে হবে। অন্যথায় কোন ধরণের সমস্যায় আপনি ওয়ারেন্টি থেকে বঞ্চিত হবেন।

ইদানীং কালে বেশ কিছু অনলইন শপ হোম ডেলিভারী সুবিধাসহ ল্যাপটপ বাজারজাত করে থাকে। এদের মধ্যে ডারাজ, ই হাট-বাজার, বিডিস্টল ইত্যাদি সাইটগুলো অন্যতম। এদের কাছ থেকে পণ্য কিনলে খুব বেশি ঠকার সম্ভাবনা নাই, কারণ এদের প্রত্যেকেরই বাজার দখল করার টেন্ডেন্সি রয়েছে। তবে আমার পরামর্শ থাকবে কেনার সময় নিজে থেকে নেড়েচেড়ে দেখে কেনই সবচেয়ে ভালো। এইগুলো ছাড়াও আরেকটি সাইট দেখতে পারেন বাংলাদেশের বাজারে Laptop price জানার জন্য। আমার নিজের ব্যবহারের জন্যে এইচপি মডেলটাকে সবেচয়ে ভালো লাগে। তাই এই মডেলের ল্যাপটপগুলোরও একটা লিংক HP laptop price রেখে যাচ্ছি।

আজ এ পর্যন্তই। আগামী দিনে আবারও প্রয়োজনীয় কোন একটি বিষয় নিয়েআপনাদের সামনে হাজির হব। সে র্যন্ত সকলে ভাল থাকুন। ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *