সেনা অভিযানে নয়, লাদেনের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে : সিআইএ গোয়েন্দা,

মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা -সিআইএ’র এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অনেক আগেই ওসামা বিন লাদেনের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, গত বছরের ২ মে পাকিস্তানেরসেনা শহর অ্যাবোটাবাদে বিন লাদেন মারা গেছেন বলে যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দেয়ার পাঁচ বছর আগে তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়।
রাশিয়ার চ্যানেল ওয়ান টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বারকান ইয়াশার নামে সিআইএ’র ওই কর্মকর্তা এসব কথা জানিয়েছেন। বারকান ইয়াশার নিজে একজন তুর্কি রাজনীতিবিদ। তিনি স্পষ্ট ভাষায় দাবি করেন, মার্কিন সেনা অভিযানে বিন লাদেন নিহত হননি।
ইয়াশার জানান, ১৯৯২ সালে চেচনিয়ায় তিনি লাদেনের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাত করেন। সে সাক্ষাত হয়েছিল গ্রোজনির একটি দোতলা ভবনের নিচ তলায়। ওই ভবনের দোতলায় বাস করত জর্জিয়ার প্রেসিডেন্ট গামসাখুরদিয়ার পরিবার। তখন গামসাখুরদিয়া দেশ থেকে বহিষ্কৃত হন। সে সময় এই ভবনেই বাস করতেন লাদেন।
সিআইএ’র সাবেক গোয়েন্দা ইয়াশার জানান,তিনি ব্যক্তিগতভাবে লাদেনের তিন চেচেন দেহরক্ষীকে চিনতেন। তিনি আরো জানান, বিন লাদেন ২০০৬ সালের ২৬ জুন মারা যানন এবং তার দেহরক্ষীরা এ ঘটনারসাক্ষী। তিনি বলেন, “সমস্ত পৃথিবী বিশ্বাস করলেও আমি বিশ্বাস করব না যে, বিন লাদেন অ্যাবোটাবাদে নিহত হয়েছেন। আমি ব্যক্তিগতভাবে লাদেনের চেচেন দেহরক্ষী সামি, মাহমুদ এবং আইয়ুবকে চিনি এবং তারা লাদেনকে তার জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রক্ষার কাজে নিয়োজিত ছিলেন।”
সিআইএ’র গোয়েন্দা ইয়াশার জানান, বিন লাদেনের শেষ ইচ্ছে অনুযায়ী তিন চেচেন দেহরক্ষী পাক-আফগান সীমান্তের পার্বত্য এলাকায় তাকে দাফন করেন। গত বছর লাদেনের মৃত্যুর ঘোষণার আগে তার সাবেক দেহরক্ষী সামিকে সিআইএ অপহরণ করে। এই সামিই লাদেনের কবরস্থান সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানান এবং তার তথ্যের ভিত্তিতে সিআইএ’র গোয়েন্দারা লাদেনের দেহ কবর থেকে তুলে আনে। পরে তারা বিন লাদেনের হত্যার কাহিনী প্রচার করে। এ ঘটনার মাধ্যমে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার দেশের জনগণকে এটা বোঝাতে চেয়েছিলেন যে, তাদের ট্যাক্সের অর্থ বিনা কারণে খরচ করা হচ্ছে না। এরপর মার্কিন প্রশাসন এঘটনাকে তাদের জন্য বিরাট বিজয় বলে দেখাতে চেয়েছে।
অনলাইনে অবলম্বনে।
ওবামা’র বাহাদুরি উড়ে গেল! হাহ!
আপনাদের সকলের প্রতি অনুরোধ পোষ্টটি সবার কাছে প্রচার করে দিন। ভাল থাকেন সবাই।

Author: বাপি কিশোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *