২০১৫ সালের সেরা ৪টি ওয়েব ব্রাউজার | COMILLAIT| Bangla Technology Blog | বাংলা প্রযুক্তি ব্লগ

২০১৫ সালের সেরা ৪টি ওয়েব ব্রাউজার

লেখক : | ০ টি কমেন্ট | 141 বার দেখা হয়েছে দেখা হয়েছে । শেয়ার করে আপনবর বন্ধুদের জানিয়ে দিন ।

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশাকরি ভাল আছেন। আজ আমি আপনাদের সাথে নতুন একটা বিষয় নিয়ে আলোচনা করব যা আপনাদের ভাল লাগবে। আজ আমি ওয়েব ব্রাউজার নিয়ে আলোচনা করব। ওয়েব ব্রাউজারের সাথে পরিচয় আছে আমাদের সবারই। ওয়েব ব্রাউজার হল এমন এক সফটওয়্যার যা আপনার চাওয়া যেকোন ওয়েব সাইট হাজির করে আপনার কম্পিউটার বা ডিভাইসের পর্দায়। ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ব্রাউজার আবশ্যক। মোবাইল এবং কম্পিউটার উভয় ডিভাইসের জন্যই নানা ওয়েব ব্রাউজার রয়েছে। তবে নানা ওয়েব ব্রাইজারের মধ্যে বর্তমানে হাতে গনা কয়েকটি ব্রাউজার দাপটের সাথে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। বর্তমানে ৪ ইন্টারনেট ব্রাউজার এখন রয়েছে শীর্ষে। নানা তথ্য এবং রিভিউ পর্যালোচনা করে র‍্যাংকিং করলে দেখা যায় প্রথম অবস্থানেই রয়েছে জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার মজিলা ফায়ারফক্স। আর দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে গুগল ক্রোম ও তৃতীয় অবস্থানে অপেরা চতুর্থ অবস্থানে কমান্ডো ড্রাগন। চলুন জেনে নেই ২০১৫ সালের এই ৪ টি সেরা ওয়েব ব্রাউজারের কিছু ইতিহাস।

১। মজিলা ফায়ারফক্স

Mozilla_Firefox_Web_Browser_60138.jpgইন্টার নেট চালাতে গেলে প্রথম যে ওয়েব ব্রাউজারের কথা আসে সেটা হল মজিলা ফায়ারফক্স ওয়েব ব্রাউজার। মজিলা ফায়ারফক্সের সাথে পরিচয় নেই এমন কেউ নেই। কারণ মজিলা ফায়ারফক্স হল বিশ্বের সর্বাধিক ব্যবহৃত ও জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার। এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যের একটি ওয়েব ব্রাউজার।মজিলা ফায়ারফক্সের শক্তিশালী ও অসাধারন সব ফিচারের কারণে আমাদের পছন্দের ওয়েব ব্রাউজারের তালিকায় শীর্ষে আছে এই ওয়েব ব্রাউজার। ২০০৪ সালের নভেম্বর ৯ তারিখে মোজিলা ফায়ারফক্সের ১.০ সংস্করন ছাড়ার ৯৯ দিনের মাথায় উন্মুক্ত এই ওয়েব ব্রাউজার ডাউনলোড হয় ২.৫ কোটি বার। আর বর্তমান এই সময়ে এসে মোজিলা ফায়াফক্সের ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০ কোটি। সহজে এবং নিরাপদে ওয়েব ব্রাউজিং করার সব ধরনের ফিচার নিয়ে তৈরি মোজিলা ফায়াফক্সের জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছেই। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর অধিকাংশ লোকই এখন পছন্দের ওয়েব ব্রাউজার হিসেবে প্রথমেই বেঁছে নিয়েছেন মোজিলা ফায়াফক্স।

২। গুগল ক্রোম

Chrome-logoব্রাউজিং জগতে অন্যতম নাম হল গুগল ক্রোম। গুগল ক্রোম বর্তমানে সারা বিশ্ববাসির কাছে একটি পরিচিতি নাম। কারন এটি বিশ্ববিখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন গুগলের তৈরি ওয়েব ব্রাউজার। মোজিলা ফায়াফক্সের পরেই জনপ্রিয়তার স্থানে অবস্থান করছে গুগল ক্রোম ওয়েব ব্রাউজার। ফ্রি এবং অনেক শক্তিশালী ফিচারের কারণে গুগল ক্রোমের জনপ্রিয়তাও কম নয়! খুব কম সময়ের মাঝেই গুগল ক্রোম ওয়েব ব্রাউজারের জগতে অনন্য নাম হয়ে উঠে। গুগল ক্রোমের জনপ্রিয়তার পিছনে অন্যতম কারন হল ইন্টারনেট জগতের অনন্য নাম গুগল। কারণ স্বভাবতই আমরা গুগলের অধীনস্ত যে কোন পণ্য বা সেবাকেই সেরা হিসেবে ধরে নিয়ে থাকি। গুগল ক্রোম তাঁর সকল অসাধারন বৈশিষ্টের মাধ্যমেই উঠে এসেছে জনপ্রিয়তার দ্বিতীয় স্থানে।

৩। অপেরা মিনি

Opera_Web_Browser_60205.jpgবাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের কাছে একটি অনন্য নাম হল অপেরা। অপেরার জনপ্রিয়তা অন্য দেশে তুলনাই অনেক। অপেরাও অন্যতম জনপ্রিয় একটি ওয়েব ব্রাউজার। তবে এর জনপ্রিয়তা মোবাইলেই বেশি। অপেরা ব্রাউজারকে অন্যতম বয়স্ক ওয়েব ব্রাউজার বলা হয়ে থাকে। ১৯৯৫ সালে অপেরা ব্রাউজারের যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ৩৫০ মিলিয়ন অপেরা ব্যবহারকারী রয়েছেন। সবচেয়ে বড় মজার ব্যপার হলো ৩৫০ মিলিয়নের ২৭০ মিলিয়নই মোবাইল ইউজার। হ্যাঁ, আসলেই অপেরা ব্রাউজার অনেক জনপ্রিয় তবে সেই জনপ্রিয়তার হার মোবাইলেই বেশী।

৪। ইন্টারনেট এক্সপ্লোর।

097-whats-a-browserদীর্ঘ দিন যাবত জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিল ইন্টারনেট এক্সপ্লোর। এটি একটি বহুল জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার। ইন্টারনেট এক্সপ্লোর জনপ্রিয়তার কারন হল এটি মাইক্রোসফটের ওয়েব ব্রাউজার। তবে বর্তমানে এই ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার এর হার ক্রমবর্ধমান বছরের তুলনাই হ্রাস পেয়েছে। তবে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের নতুন সংস্করণ 11 মাধ্যমে কিছু আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্য, এটি দ্রুত এবং নিরাপত্তা আপগ্রেড করায় এটি আবার বিবেচনা যোগ্য হয়েছে। তবে এর আরেকটি সমাস্যা হল ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার 11 তে উইন্ডোজ 7 এর জন্য জাভা সমর্থন করে না। ওয়েব ব্রাউজার গুলো সম্পর্কে কোন মতামত থাকলে অবশ্যই জানাবেন। আজকের মতো এখানেই শেষ করছি।

লেখাটি আপনাদের ভাল লেগেছে?
FavoriteLoadingপ্রিয় পোষ্ট যুক্ত করুন

১টি কমেন্ট করুন

*