২০১৫ সালের সেরা ৫ টি ট্যাবলেট কম্পিউটার

কেমন আছেন সবাই আশা করি সবাই ভাল আছেন আজ আমি আপনাদের সবার সাথে কিছু ট্যাবলেট কম্পিউটারের পরিচয় করিয়ে দিব যা আপনাদের খুব ভাল লাগতে বাধ্য করবে।

বর্তমানে ট্যাবলেট কম্পিউটার সচেতন ক্রেতাদের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। আপনার ল্যাপটপের বিকল্প হতে পারে ট্যাবলেট কম্পিউটার এবং বড় আকারের পোর্টেবল বা বহনযোগ্য কম্পিউটার বহন করার চেয়ে একটি আইপ্যাড বা অন্য কোনো ট্যাবলেট ডিভাইস বহন করা অনেক সহজ। বর্তমান বাজারে সাশ্রয়ী মুল্যের অনেক ট্যাবলেট কম্পিউটার আছে। যে ট্যাবলেট কম্পিউটারের অধিকাংশ ট্যাবলেটেই একটি বিল্ট-ইন ক্যামেরা রয়েছে, যা দিয়ে আপনি নিশ্চিন্তে আপনার বন্ধুদের সাথে ছবি তুলাসহ ভিডিও চ্যাট করতে পারবেন। এখন আমি আপনাদের সামনে বাজারের সেরা পাঁচটি ট্যাবলেট কম্পিউটার নিয়ে আলোচনা করব। যে ট্যাবলেট কম্পিউটার গুলো সত্যিকার অর্থে আপনাকে কার্যকরী ভূমিকা পালন করতে সাহায্য করবে। আমরা এই ডিভাইসগুলোকে সবচেয়ে বেশী দাম থেকে শুরু করে কম দামের ক্রম অনুযায়ী সাজিয়েছি।

আইপ্যাড মিনি

SONY DSCট্যাবলেট কম্পিউটার নিয়ে আলোচনা করলে অবশ্যই অ্যাপেলের পণ্য নিয়ে আলোচনা করতে হবে। আপনি যদি একটি ভাল মানের ট্যাবলেট কম দামে কিনতে চান তাহলে আইপ্যাডইমিনি কেনাই আপনার জন্য ভালো হবে। এটি সুলভ মুল্যে পাবেন এবং বড় সংস্করণের সব ফিচারই এতে পাবেন। এই ডিভাইস দিয়ে সব কিছুই করতে পারবেন। এই ডিভাইসটি আপনি যে সুবিধা পাবেন তাহলো এই ডিভাইসটি দিয়ে আপনি অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন, ই-মেইলের সুবিধা পাবেন এবং বন্ধুবান্ধব ও পরিবার পরিজনদের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারবেন। ইন্টারনেট সার্ফ করতে পারবেন,এবং ডকুমেন্ট ও মিডিয়া নিয়ে কাজ করার জন্য অনেক স্টোরেজ রয়েছে। বাজারের অন্যতম সেরা ডিভাইসটি কিনলে আপনি কোন রকম ঠকবেন না।

আসুস মেমো প্যাড ৮

আসুস মেমো প্যাড ৮যারা স্বল্প বাজেটের কারনে খুব ভাল মানের ট্যাবলেট কম্পিউটার কিনা নিয়ে খুব বিপদে আছেন তাদের জন্য একটি সুন্দর ডিভাইস হল আসুস মেমো প্যাড ৮। অসংখ্য ফিচারসমৃদ্ধ এই ডিভাইসটি কিনতে পারেন আপনার কোন ঝামেলা হব না। এটি অনেক হালকা-পাতলা এবং এর একটি রঙিন স্ক্রিন এবং সংবেদনশীল ইন্টারফেস রয়েছে। এই ট্যাবলেটটিতে অসংখ্য প্রি-লোডেড অ্যাপস রয়েছে যা কম দামের অনেক ট্যাবলেটেই পাবেন না। এছাড়াও, এতে অধিকাংশ ট্যাবলেট কম্পিউটারের স্টোরেজ সমস্যা অনেকটাই দূর করা হয়েছে ক্লাউড স্টোরেজে সহজ অ্যাক্সেস দিয়ে। এতে একটি মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট রয়েছে যা দিয়ে স্টোরেজ ৬৪ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে, যা ট্যাবলেট কম্পিউটারের জন্য অনেক জায়গা।

অ্যামাজন কিন্ডল ফায়ার এইচডিএক্স ৭

amazon h d 6বাজারের সুলভ মূল্যের যে কয়টি ট্যাবলেট কম্পিউটার আছে তাদের মধ্যে অ্যামাজন কিন্ডল ফায়ার এইচডিএক্স ৭ অন্যতম ।দাম অনুযায়ী এই ডিভাইসটি অত্যন্ত ভালো। এই ট্যাবলেটটির একটি শক্তিশালী প্রসেসর রয়েছে এবং মুহূর্তেই আপনি অ্যাপস, মিডিয়া, বই, এবং অন্যান্য কনটেন্টে প্রবেশ করতে পারবেন। এটি অসাধারণ কর্মক্ষমতার অধিকারী। পাতলা এবং সুন্দর গঠনের এই ডিভাইসটিতে আপনার কাজের জন্য নিজস্ব সিল্ক ব্রাউজার, ই-মেইল, ক্যামেরা এবং অন্যান্য অসংখ্য অ্যাপ রয়েছে। অধিকাংশ মোবাইল ট্যাবলেটের মতোই এতে আপনাকে অ্যাপ স্টোর ইন্সটল করতে হবে। এতে ১৬ জিবি স্টোরেজ রয়েছে। সুন্দর এই ডিভাইসটি ভিডিও, নিউজস্ট্যান্ড, অডিওবুকস, ওয়েব, ছবি এবং অন্যান্য ডকুমেন্ট একটি মাত্র ক্লিকেই অ্যাক্সেস করতে পারবেন।

অ্যামাজন ফায়ার এইচ ডি ৬

KindleFireHDX89Horizontalবর্তমান বাজারের সবচেয়ে সুলভ ট্যাবলেট অ্যামাজন ফায়ার এইচ ডি ৬ অন্যতম। এই সস্তা ট্যাবলেট কেনার ফলে আপনাকে পরবর্তীতে পস্তাতে হবে না। অ্যামাজন কর্তৃক তৈরি এই ডিভাইসটির পারফরমেন্স ভালো এবং এর অনেক গুরুত্তপুন্ন ফাংশন রয়েছে। এতে ৮ জিবি ফ্রি স্পেস রয়েছে, তাই আপনি যদি অনেক মিডিয়া ফাইল সংরক্ষণ করতে পারবেন। আপনার পরিবার-পরিজন ও বন্ধুবান্ধবের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য এতে সকল ফিচার রয়েছে। দীর্ঘ ব্যাটারি লাইফ নিশ্চিত করার জন্য এতে অনেক ব্যাটারি সেভিং ফিচার রয়েছে।

ডেল ভ্যেনু ৭

dell-venue-7আপনি যদি সত্যিই সাশ্রয়ী মুল্যে ট্যাবলেট কিনতে চান তবে সেক্ষেত্রে ডেল ভ্যেনু ৭ অন্যতম সেরা। এই মুল্যে এর চেয়ে ভালো কিছু আর পাবেন না। যারা একটি ভালো, স্বল্প মুল্যের এবং দীর্ঘদিন টিকে থাকবে এমন জিনিস চাচ্ছেন তাঁদের জন্যই এটি ট্যাবলেট। এই ডিভাইসটির কভার হালকা এবং এটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ কেননা অ্যান্ড্রয়েড একটি উন্নত অপারেটিং সিস্টেম যার সহায়তা ও নির্ভরযোগ্যতা প্রমানিত। এতে অ্যাপগুলো পূর্বেই ইন্সটল করা থাকে কিন্তু আপনি যদি কোনো সফটওয়্যার না চান তবে সহজেই আনইন্সটল করে মুছে ফেলতে পারবেন।

 

Author:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *