২০১৫ সালের ৩ টি জনপ্রিয় মোবাইল

yotaphone

১। ইয়োটাফোনঃ

রাশিয়ায় আবিস্কৃত এক অসাধারন মোবাইল ইয়োটাফোন। এই ফোনের এতই জনপ্রিয়তা যে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন রাষ্ট্রীয় সফরে থাকা চীনের প্রেসিডেন্টকে দেশের গর্ব হিসেবে নিজ হাতে উপহার দিয়েছেন। ইয়োটাফোন নামক কোম্পানি ডাবল ডিসপ্লের এই মোবাইল সেট বের করে রাতারাতি বিখ্যাত হয়ে গেছে।

ইয়োটাফোনের ফিচার সমুহঃ

ডিজাইনঃ এই ফোনের আকর্ষণীয় বিষয় হচ্ছে এর সামনে এবং পিছনে দুাটি ডিসপ্লে। এবং হ্যান্ডসেটটা খুবই পাতলা। এর পুরা বডি রাবার জাতীয় প্লাস্টিক দ্বারা তৈরী।

yotaphone

ক্যামেরাঃ ফেনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সলের ক্যামেরা। এবং সামনে পিছনে ডিসপ্লে হওয়ার কারনে খুব সহজেই ব্যাক ক্যামেরাকে ফ্রন্ট ক্যামেরা হিসেবে ব্যাবহার করা যাবে এবং ৮ মেগাপিক্সল সম্পন্ন ক্যামেরায় সেলফি তোলা যাবে।

অপারেটিং সিস্টেমঃ এই ফোনটিতে রয়েছে গিগাহার্জ কোয়ার্ড কোর প্রসেসরও ২ জিবি র‌্যাম। এবং ইন্টারনাল মেমোরী স্পেস থাকছে ৩২ জিবি, মেমোরি এতে সাপোর্ট করবে না।

ব্যাটারিঃ ২৫০০ মিলি-অ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি লাইফ বেশ ভালো বলতে হবে। ব্যাটারি লাইফ আরও দীর্ঘ করবার জন্য ছোটখাটো কাজগুলো কম শক্তিশালী ব্যাক ডিসপ্লে দিয়ে সারতে পারেন, এতে অরিজিনাল ডিসপ্লের চেয়ে কম চার্জ খরচ হবে।

২। Symphony Xplorer H200 (কিটকাট ভার্সন)

সিমফনি নিয়ে এলো অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন এন্ড্রয়েড ফোন Symphony Xplorer H200

সিমফনির এই মডেলে যোগ করা হয়েছে এন্ড্রয়েড 4.4.2 (kitkat)ভার্সন ও ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ফ্লাস এর সুবিধা। এছাড়া এই মোবাইলটিতে ফ্রন্ট এবং ব্যাক উভয় সাইডেই ফ্লাশ রয়েছে। যার ফলে সেলফি তোলার ক্ষেত্রেও ফ্লাশ ব্যাবহার করা যাবে । এই মোবাইলের ফিচার সমুহ হলো

symphonyxplorerh200

১) অপারেটিং সিস্টেমঃ এই মডেলের ফোনে আছে ডুয়েল সিম ও এন্ড্রয়েড 4.4.2 (kitkat)ভার্সন। এবং 1.3 GHz কোয়াডকোর প্রসেসর(MT6582), জিপিইউ- মালি 400

২) ডিসপ্লেঃ ৪.৭ ইঞ্চি এই মোবাইলটির একটিই সাইজ রয়েছে যার একটিই কালার সেটা হলো সাদা। এবং এর ওজন ১৩৭ গ্রাম।

৩) ক্যামেরাঃ এই ফোনের ব্যাক ক্যামেরা ১৩ মেগাপিক্সেলের এবং ফ্রন্টক্যামেরা ৮ মেগাপিক্সেলের। এবং এই মোবাইলে সামনে এবং পিছনে উভয় সাইটে ফ্লাস আছে। এই মোবাইলে সনি আইএমএক্স সেন্সর ব্যাবহার করা হয়েছে।

৪) মেমোরিঃ এতে আছে ১ জিবি, রম ১৬ জিবি এবং মাইক্রো এসডি কার্ডের স্লট রয়েছে যা ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

৫) ব্যাটারীঃ এতে দেওয়া আছে1800 mAh লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি, যার Standby time 450 ঘন্টা ।

৬) সেন্সরঃ এতে G-sensor , Accelerometer sensor , Proximity sensor , ও Light sensor ব্যাবহার করা হয়েছে।

এবং এই ফোনের বাজার মুল্য প্রায় ১২,৫০০ টাকা।(প্রায়)

৩। Symphony Xplorer W125

সিম্ফনি Xplorer W125 স্বল্পমুল্যের জনপ্রিয় স্মার্টফোন। স্বল্পমুল্যের হওয়ায় বাংলাদেশে এটি খুব দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।এছাড়া ফোনটিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা এবং ৩জি।

Symphony Xplorer W125

ফোনটির বৈশিষ্ঠঃ  

ডুয়েল সিম ডুয়াল স্ট্যান্ডবাই, আপনি একই সময়ে দুটি সিম কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। এই ডিভাইসটি একটি দ্রুত চতুর্মুখী কোর ১.২গিগাহার্জ কর্টেক্স-এ ৭ প্রসেসর আছে. এটি উচ্চ মানের গেমিং জন্য খুবই ভালো, এতে আছে ১ গিগাবাইট র‌্যাম । এলইডি ফ্ল্যাশ হালকা এবং বি.এস.আই সেন্সর সঙ্গে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা 3264 x এর 2448 পিক্সেল হাই রেজোলিউশনের ফটো এবং 30fps এ 1080 পি ভিডিও রেকর্ডিং । অ্যান্ড্রয়েড v4.1 (Jelly Bean) অপারেটিং সিস্টেম এই ডিভাইস চালানো হয়। এই ফোন ভিডিও কলিং এবং দ্রুত মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করার জন্য 3G নেটওয়ার্ক সমর্থন করে। এটা 32GB মেমরি কার্ড থেকে আপ জন্য একটি বহিরাগত মেমরি কার্ড স্লট আছে। এবং এর ডিসপ্লে 4.5 ইঞ্চি।

বর্তমান বাজারে এর দাম ১২,২০০ প্রায়।

Author:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *