এখন গ্রামীণফোন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনঃ সব সেবা একখানে পাবার সহজ উপায়

এখন গ্রামীণফোন নতুন সিমফোনি ক্রেতাদের টানা ৬ মাস ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা দিচ্ছে। এই ব্যাপারেবিস্তারিত জানতে গ্রামীণফোনের সাইট ঘাঁটতে গিয়ে চোখে পড়ে তাদের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনের কথা। অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন তারা কবে রিলিজ দিয়েছে ঠিক জানি না, হয়তো পেপারে বিজ্ঞাপনও দিয়েছে। কিন্তু পেপার রাখা হয়না তাই চোখ এড়িয়ে গেছে।

যাই হোক, অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করলাম। ব্যবহার শেষে মনে হলো, গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীদের অ্যান্ড্রয়েডে এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন থাকা উচিৎ। এতে গ্রামীণফোনের বেশিরভাগ সেবারই সরাসরি অ্যাক্টিভেট-ডিঅ্যাক্টিভেট ইত্যাদি করার সুবিধা রয়েছে।

জিপি অ্যাপ

সহজ ইন্টারফেস থেকে আপনার প্রয়োজনীয় সেবাটি খুঁজে পেতে কোনো কষ্টই হবে না।

জিপি অ্যাপ প্রায় আড়াই মেগাবাইট আকারের ছোট একটি অ্যাপ্লিকেশন। মূলত গ্রামীণফোন গ্রাহকদের জন্যই এই অ্যাপ্লিকেশনটি তৈরি। এর মাধ্যমে আপনি গ্রামীণফোনের বিভিন্ন সুবিধা ও সেবা পেতে পারবেন। প্রায়ই আমরা কোনো সেবা চালু বা বন্ধ করতে চাই কিন্তু কী লিখে কত নম্বরে পাঠাতে হবে তা মনে রাখতে পারি না। সেসব মূহুর্তের জন্যই গ্রামীণফোনের এই অ্যাপ্লিকেশন বেশ কাজে দেবে। আর আপনি যদি গ্রামীণফোন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী হোন, তাহলে তো জিপি অ্যাপ আপনার থাকতেই হবে! কেননা, এটি দিয়ে আপনি বারবার টাইপ করার বদলে মাত্র কয়েক ট্যাপেই জেনে নিতে পারবেন আপনার ইন্টারনেট প্যাকেজের মেয়াদ ও বাকি থাকা ভলিউমের পরিমাণ।

জিপি অ্যাপ-এ যেসব সুবিধা রয়েছে, সেগুলো হলোঃ

  • বর্তমান এফএনএফ নম্বর দেখা, বদলানো বা যোগ করা।

  • প্রিপেইড প্যাকেজ মাইগ্রেশন বা এক প্যাকেজ থেকে অন্য প্যাকেজে যাওয়া।

  • মোবাইলের ব্যালেন্স বা কত টাকা আছে তা চেক করা।

  • ইন্টারনেট সেবা চালু করা।

  • ইন্টারনেট হ্যান্ডসেট কনফিগারেশনের জন্য রিকোয়েস্ট করা।

  • ইন্টারনেট ভলিউম ও মেয়াদ দেখা।

  • ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করা।

  • মিসড কল অ্যালার্টের মতো বিভিন্ন ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস চালু বা বন্ধ করা।

  • মোবাইলের ব্যালেন্স ট্রান্সফার করা।

  • ওয়ালপেপার, গেমস, ভিডিও, মিউজিক ইত্যাদি ডাউনলোড করা।

এখানে আগে থেকেই বলে রাখা ভালো যে, বিভিন্ন কন্টেন্ট (ভিডিও, মিউজিক ইত্যাদি) ডাউনলোড করার জন্য বাড়তি চার্জ প্রযোজ্য। আর অ্যাপ্লিকেশনটি ব্রাউজ করার সময় আপনার ফোনে কোনো না কোনো প্যাকেজে ইন্টারনেট চালু থাকতে হবে। যদিও এসবের প্রায় সবই কোনো ইন্টারনেট ছাড়াই *111#-থেকে ব্রাউজ করা যায়, তবুও এই অ্যাপ্লিকেশনটির মাধ্যমে টাইপের কাজ বাদ দিয়ে কেবল ক্লিক বা ট্যাপ করেই আপনার কাজ সারতে পারবেন। আর যখন ক্লিক আর ট্যাপ করেই কাজ সারা যায়, তখন অযথা টাইপ করার দরকার কী?

অ্যাপ্লিকেশনটি দিয়ে দেখে নিতে পারবেন আপনার স্ট্যাটাস “স্টার” কি না!

গ্রামীণফোন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনটি গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীদের জন্য ফ্রি-তেই পাওয়া যাচ্ছে গুগল প্লে স্টোরে। একই ধরনের অ্যাপ্লিকেশন অন্যান্য সাধারণ (ফিচার ফোন) মোবাইলের জন্যও গেটজার থেকে ডাউনলোড করা যাবে। অথবা ব্ল্যাকবেরি ব্যবহারকারীদের জন্যও রয়েছে এই অ্যাপ্লিকেশন। তবে অ্যান্ড্রয়েডের জন্য আপনি নিচের লিংক থেকে গুগল প্লে-তে গিয়ে অথবা আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন থেকে নিচের কিউআর কোডটি স্ক্যান করে সরাসরি ডাউনলোড করে নিতে পারেন জিপি অ্যাপ।

গুগল প্লে স্টোর লিংকঃ জিপি অ্যাপ

গ্রামীণফোনের এই অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনটি ইতোমধ্যেই ব্যবহার করেছেন? না করে থাকলে এখনই ডাউনলোড করে ব্যবহার করুন আর আমাদের জানান আপনার প্রতিক্রিয়া। ডাউনলোড করার আগে অবশ্যই যে কোনো ইন্টারনেট প্যাকেজে সাবস্ক্রাইব করে নেবেন। নইলে ২ মেগাবাইট ডাউনলোড করতে কিন্তু অনেক টাকা খরচ হয়ে যাবে!

Author: drmasud

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *