একটি চাঁদনী রাত অনুচ্ছেদ | বাংলা ২য় পত্র অনুচ্ছেদ রচনা

একটি চাঁদনী রাত অনুচ্ছেদ

প্রশ্নঃ একটি চাঁদনী রাত/জ্যোৎস্না রাত নিয়ে বাংলা অনুচ্ছেদ লিখ ।

উত্তরঃ

একটি চাঁদনী রাত অনুচ্ছেদ

আকাশে পূর্ণচন্দ্র যখন রাতের বেলায় উজ্জ্বলভাবে কিরণ দেয় তখন তাকে চাদনী রাত বলে। চাঁদনী রাতে চাঁদকে একটি রুপোর থালার মতাে দেখায়। চাদের স্নিগ্ধ আলােতে সমস্ত পৃথিবী ‌আলোকিত হয়। মাঝে মাঝে চাদ ভাসমান মেঘের সাথে লুকোচুরি খেলে। চাঁদের চারপাশে উজ্জ্বল তারকা মিটমিট করে জ্বলতে থাকে এবং আকাশকে একটি স্বপ্নের রাজ্যে পরিণত করে। চাঁদনী রাতে চাঁদ একটি আকর্ষণীয় দৃশ্য উপস্থাপন করে যা সকলেই এটা উপভোগ ও পছন্দ করে। এটা আমাদের মন জুড়ায়। প্রকৃতির বিভিন্ন জিনিস মনে হয় চাঁদের আলােতে হাসতে থাকে। সারা আকাশ উজ্জ্বল দেখায় । চাঁদের আলােতে স্বর্গীয় আলো বলে মনে হয়। যখন চাদের আলাে পানিতে পতিত হয় তখন এটা মুক্তার মত জ্বল জ্বল করে। চাঁদনী রাত মানুষের মনে গভীর প্রভাব বিস্তার করে। এটা মানব মনের রোমাঞ্চ অনুভূতি জাগ্রত করে। কবিগণ আনন্দ এবং আবেগে আপ্লুত হয় এবং মনঃমুগ্ধকর কবিতা রচনা করে। বনের পশু পাখির মধ্যেও আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে । চাদনী রাতের দৃশ্য গ্রামেই সবচেয়ে ভালোভাবে অবলােকন ও উপভোগ করা যায়। শহরের বৈদ্যুতিক আলােতে সব রাতগুলােই কেমন জানি একই রকম দেখায়। গ্রামের মানুষরাই মূলত চাদনী রাতকে উপভোগ করে। তারা উঠোনের মধ্যে বসে গল্প করে সময় কাটায়। এক কথায় চাদনী রাত পৃথিবীতে একটি মনঃমুগ্ধকর ও আকর্ষণীয় দৃশ্য উপস্থাপন করে। চাদনী রাত সৃষ্টিকর্তার এক অপরূপ সৃষ্টি ।

—সমাপ্তি–

জ্যোৎস্না রাত অনুচ্ছেদ

আকাশে পূর্ণচন্দ্র যখন রাতের বেলায় উজ্জ্বলভাবে কিরণ দেয় তখন তাকে জ্যোৎস্না রাত বলে। জ্যোৎস্না রাতে চাঁদকে একটি রুপোর থালার মতাে দেখায়। চাদের স্নিগ্ধ আলােতে সমস্ত পৃথিবী ‌আলোকিত হয়। মাঝে মাঝে চাদ ভাসমান মেঘের সাথে লুকোচুরি খেলে। চাঁদের চারপাশে উজ্জ্বল তারকা মিটমিট করে জ্বলতে থাকে এবং আকাশকে একটি স্বপ্নের রাজ্যে পরিণত করে। জ্যোৎস্না রাতে চাঁদ একটি আকর্ষণীয় দৃশ্য উপস্থাপন করে যা সকলেই এটা উপভোগ ও পছন্দ করে। এটা আমাদের মন জুড়ায়। প্রকৃতির বিভিন্ন জিনিস মনে হয় চাঁদের আলােতে হাসতে থাকে। সারা আকাশ উজ্জ্বল দেখায় । চাঁদের আলােতে স্বর্গীয় আলো বলে মনে হয়। যখন চাদের আলাে পানিতে পতিত হয় তখন এটা মুক্তার মত জ্বল জ্বল করে। জ্যোৎস্না রাত মানুষের মনে গভীর প্রভাব বিস্তার করে। এটা মানব মনের রোমাঞ্চ অনুভূতি জাগ্রত করে। কবিগণ আনন্দ এবং আবেগে আপ্লুত হয় এবং মনঃমুগ্ধকর কবিতা রচনা করে। বনের পশু পাখির মধ্যেও আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে । জ্যোৎস্না রাতের দৃশ্য গ্রামেই সবচেয়ে ভালোভাবে অবলােকন ও উপভোগ করা যায়। শহরের বৈদ্যুতিক আলােতে সব রাতগুলােই কেমন জানি একই রকম দেখায়। গ্রামের মানুষরাই মূলত জ্যোৎস্না রাতকে উপভোগ করে। তারা উঠোনের মধ্যে বসে গল্প করে সময় কাটায়। এক কথায় জ্যোৎস্না রাত পৃথিবীতে একটি মনঃমুগ্ধকর ও আকর্ষণীয় দৃশ্য উপস্থাপন করে। জ্যোৎস্না রাত সৃষ্টিকর্তার এক অপরূপ সৃষ্টি ।

—সমাপ্তি–

আরও জানুনঃ

সব গুরুত্বপূর্ণ বাংলা অনুচ্ছেদগুলোর তালিকা

Author: Shahbi

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *